হার্ডডিষ্ক ড্রাইভ ও প্রকারভেদ (Definition and Types of HDD)

হার্ডডিষ্ক ড্রাইভ একটি মটর, কতগুলো রিড/রাইট হেড ও একটি ডিষ্ক প্যাকের সমন্বয়ে গঠিত। মটরটি ইহার অক্ষ বরাবর ৩৬০০/৫০০০ আরপিএম (RPM)-এ ডিষ্ক প্যাকটিকে ঘুরাতে সাহায্য করে। তবে বড় আকারে হার্ড ডিষ্ক সাধারণত ১০০০ আরপিএম-এ ঘুরে থাকে। হেড গুলো ডিষ্কের ব্যাসার্থ বরাবর সামনে পিছনে চলাচল করে থাকে।

 

নিম্নে বিভিন্ন প্রকারের হার্ড ডিষ্ক ড্রাইভ সম্বন্ধে সংক্ষেপে আলোচনা করা হল :-

১। ওপেন-লুপ এবং ক্লোজড লুপ ডিষ্ক ড্রাইভ

(Open-loop and closed-loop disk drive)

২। স্থানান্তরযোগ্য ডিষ্ক ড্রাইভ এবং স্থির ডিষ্ক ড্রাইভ

(Removable disk drive and fixed disk drive)

৩। গতিশীল হেড এবং গতিহীন হেড ডিষ্ক ড্রাইভ

(Moving head and fixed head disk drive)

৪। একক হেড এবং দ্বৈত হেড বিশিষ্ট ডিষ্ক ড্রাইভ

(Single head and dual head disk drive)

৫। উইনচেষ্টার এবং নন-উইনচেষ্টার ডিষ্ক ড্রাইভ

(Winchester and non-winchester disk drive)

 

১। ওপেন-লুপ এবং ক্লোজড লুপ ডিষ্ক ড্রাইভ :

ওপেন-লুপ সিষ্টেম হেডকে চলাচল করানোর জন্য একটি ষ্টেপার মটর ব্যবহার করা হয়। এই সিষ্টেমে হেডটি সাধারণত : ‘০’ নম্বর ট্র্যাকে অবস্থান করে থাকে এবং মটর ষ্টেপ পালস (STEP pulse) গ্রহণ করার সাথে সাথেই হেডটি কত দূরত্ব অতিক্রম করবে।হেডটিন স্থানান্তর হচ্ছে কিনা অথবা হেডটি সঠিক নম্বর ট্র্যাকে পৌছিয়েছে কিনা তা বুঝার কোন ব্যবস্থা এই সিষ্টেমে নেই। তাই এই সিষ্টেমটির উপর নির্ভর করা সমীচীন নহে।

 

এই অসুবিধা দূর করার জন্য এই সিষ্টেমে একটি সফটওয়্যার ব্যবহার করা হয়। এখানে সফটওয়্যারটি বলে দেয় হেডটি সঠিক ট্র্যাকে অবস্থান করছে কিনা। ষ্টেপার মটর এবং প্রয়োজনীয় ইলেকট্রনিক সার্কিটের দাম কম বিধায় এই সিষ্টেমে খরচ কম লাগে।

 

ক্লোজড-লুপ সিষ্টেমে একটি লিনিয়ার ভায়েস কয়েল (A linear voice coll) ব্যবহার করা হয়। ইহা হেডকে বিভিন্ন বেগে চলাচল করতে পারে। হেডকে অধিক দূরত্বে স্থানান্তর করতে চাইলে এই ভয়েস কয়েলটি হেডটিকে উচ্চ বেগে স্থানান্তর করে থাকে। পক্ষান্তরে, হেডকে স্বল্প দূরত্বে স্থানান্তর করতে চাইলে কয়েলটি হেডটিকে নিম্ন বেগে স্থানান্তর করে থাকে। এই প্রক্রিয়া পযায়ক্রমে চলতে থাকে, যতক্ষণ পযন্ত না হেডটির গতি শূন্য হয়। (অর্থাৎ হেডটি সঠিক ট্র্যাকে না পৌঁছায়)।কিন্তু ক্লোজড-লুপ সিষ্টেমের খরচ ওপেন-লুপ সিষ্টেমের দুই/তিন গুণ বেশি লাগে।

 

২। স্থানান্তরযোগ্য ডিষ্ক ড্রাইভ এবং স্থির ডিষ্ক ড্রাইভ :

স্থানান্তরযোগ্য ডিষ্ক ড্রাইভে, ডিষ্ক গুলোকে ড্রাইভ হতে খুলে আলমারিতে রাখা যায় যদি ডিষ্ক গুলোকে ব্যবহার করার দরকার না পড়ে।এখানে যে কোন সংখ্যক ডিষ্ক প্যাক ব্যবহার করা যায়। পক্ষান্তরে, স্থির ডিষ্ক ড্রাইভ হতে ডিষ্ক গুলোকে স্থানন্তর করা যায় না।

 

৩। গতিশীল হেড এবং গতিহীন হেড ডিষ্ক ড্রাইভ :

গতিশীল হেড ডিষ্ক ড্রাইভের হেড গুলোকে কম্পিউটারের কমান্ড দ্বারা এক ট্র্যাক হতে অন্য ট্র্যাকে স্থানান্তর করা যায়।

পক্ষান্তরে, গতিহীন হেড ডিষ্ক ড্রাইভের হেড গুলোকে মোটেই স্থানান্তর করা যায় না।তাই এই সিষ্টেমে প্রতিটি ট্র্যাকে একটি করে স্থির হেড দরকার পড়ে।

 

৪। একক হেড এবং দ্বৈত হেড বিশিষ্ট ডিষ্ক ড্রাইভ :

একক হেড বিশিষ্ট ডিষ্ক ড্রাইভে, প্রতিটি পৃষ্ঠতলের জন্য একটি মাত্র হেড থাকে। এখানে হেডগুলো একটি ঘূর্ণায়মান দন্ডের সাহায্যে দৃঢ়ভাবে আটকানো থাকে এবং হেডগুলো একই নম্বর যুক্ত সিলিন্ডারে অবস্থান করে থাকে।

দ্বৈত হেড বিশিষ্ট ডিষ্ক ড্রাইভে প্রতিটি পৃষ্ঠতলের জন্য দু’টি করে হেড থাকে। এখানে প্রথম সেটের হেডগুলো ‘০’ নম্বর সিলিন্ডারে অবস্থান করলে দ্বিতীয় সেটের হেডগুলো মাঝের নম্বর সিলিন্ডারে অবস্থা করবে। যখন প্রথম সেটের হেড গুলো মাঝের নম্বর সিলিন্ডারে অবস্থান করবে। তা হলে দেখা যাচ্ছে, এই সিষ্টেমে প্রথম সেটের হেডগুলো প্রথম অর্ধেক সিলিন্ডার পযন্ত দৈর্ঘ্য অতিক্রম করে থাকে।

 

৫। উইনচেষ্টার ডিষ্ক ড্রাইভ :

উইনচেষ্টার হচ্ছে, একটি টেকনোলজির নাম। ১৯৭৩ সালে আইবিএম ইউকের (UK) উইনচেষ্টারে তাদের বিজ্ঞানগারে নতুন করে ডিষ্ক ড্রাইভ ডিজাইন করেন। তাই উইনচেষ্টারের নাম অনুসারে ডিষ্ক ড্রাইভের নামকারণ করা হয়েছে উইনচেষ্টার ডিষ্ক ড্রাইভ। উইনচেষ্টার টেকনোলজির বৈশিষ্ট্য হচ্ছে-

 

  • রিড/রাইট হেডগুলো এবং ডিষ্কগুলো একত্রে দৃঢ়ভাবে আটকানো থাকে।
  • হেড এবং ডিষ্কের মাধ্যে ফাঁকা জায়গার দৈর্ঘ্য সাধারণত ০.৫ মাইক্রো মিটারেরও কম।
  • ডিষ্ক যখন স্থির অবস্থায় থাকে, তখন হেডগুলো ল্যান্ডিং জোনে (Landing zone) অবস্থান করে। ল্যান্ডিং জোনে কোন ডাটা লেখা যায় না।

হেডগুলো যাতে ক্ষয় প্রাপ্ত না হয় তার জন্য ডিষ্কের পৃষ্ঠতলে তৈলের প্রলেপ থাকে।

myblog

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *