We're on facebook! Like us
Search
Posted by Uzzal Khan, February 7, 2017

অ্যান্ড্রয়েড টিপস

অ্যান্ড্রয়েডের ম্যালওয়্যার সংক্রান্ত ৫টি তথ্য

চারদিকে ম্যালওয়ারের ছড়াছড়ি! আবার কম্পিউটারের সেই ভাইরাসের মত বলে স্মার্টফোনেও ভাইরাস ঢোকে? – সাধারণ ব্যবহারকারীদের মনে এই প্রশ্ন গুলো খুবই কমন। একজন সাধারণ ব্যবহারকারী (বেসিক ইউজার) একটি মোবাইল কিনে আনার পরেই স্মার্টফোনটির ভিতরে কোন না কোন প্রি-ইন্সটলড অ্যান্টি-ম্যালওয়ার প্রোগ্রাম পেয়ে থাকেন – সেখান থেকেই মাথায় ঢুকে যায় হয়তো,’খাইছে! ভাইরাসও ধরে তাহলে?’ চলুন, আজ আপনাদের সাথে শেয়ার করা যাক এরকমই কিছু! আজ আমি আপনাদের সাথে শেয়ার করছি ‘অ্যান্ড্রয়েডের ম্যালওয়ার সংক্রান্ত ৫ টি তথ্য’ যা আপনার উপকারে আসবে বলেই আশা করছি। শুরু করা যাক তাহলে…।

১। অ্যান্ড্রয়েডে ম্যালওয়ার সত্যিই রয়েছে

১ আপনি যদি এমন একটি ডিভাইস ব্যবহার করেন যা ইন্টারনেটের সাথে কানেক্টেড থাকলে বলা চলে ম্যালওয়ার দ্বারা আক্রান্ত হওয়ার কিছুটা সম্ভবনা ডিভাইসটির রয়েছে। উদাহরণস্বরূপ, উইন্ডোজ, ম্যাক, আইফোন এবং এমনকি ব্ল্যাকবেরি ডিভাইস সমূহও এই ঝুঁকি থেকে সংঙ্কা মুক্ত নয়। যেহেতু ইন্টারনেটের মাধ্যমেই অধিকাংশ ম্যালওয়ার বিভিন্ন ইন্টারনেট কানেকশন যুক্ত ডিভাইসে ছড়ায়, তাই অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসও এর ব্যাতিক্রম নয়। বরং, অ্যান্ড্রয়েডের প্রকৃত এক্সপেরিয়েন্স ইন্টারনেট ছাড়া পাওয়া সম্ভব নয়। বিগত বছর গুলোতেও ‘অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইস গুলো ম্যালওয়ার আক্রান্ত হয়েছে’ – এরকম খবর শোনা গিয়েছে। আর এ সম্পর্কে সবচাইতে বেশি পাবলিক কেস পাওয়া গিয়েছে মাইক্রো সফটের ড্রয়েড-রেজ ক্যাম্পেইন থেকে। অ্যান্ড্রয়েডের ম্যালওয়ার দ্বারা আক্রান্ত হওয়ার সম্ভবনা থাকা স্বত্তেও এখন পর্যন্ত বিষয়টাকে ‘এক্সট্রিম কেস’ হিসেবেই ধরা হয়। আবার এও সত্যি যে, অ্যান্ড্রয়েডের ম্যালওয়ার দ্বারা আক্রান্ত হবার ঝুঁকি থাকলেও এখন পর্যন্ত সবচাইতে কম আশংকা জনক প্লাটফর্মও এই অ্যান্ড্রয়েডই। কেননা, বিভিন্ন পরীক্ষায় প্রমাণিত হয়েছে যে শতকার ০.০০১ এরও কম ক্ষতিকর অ্যাপলিকেশন গুগলের নিরাপত্তা স্তর পার করতে সক্ষম হয়ে থাকে। আবার হাস্যকর হলে এটিও সত্যি যে অ্যান্ড্রয়েডের ম্যালওয়ার থাকা স্বত্তেও অধিকাংশ সাধারণ ব্যবহারকারীদের জন্য এই ম্যালওয়ার খুব বেশি মাথা ব্যাথার কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারবেনা।

২। গুগলের রয়েছে নিরাপদ নিরাপত্তা স্তর

অনেকেই মনে করে থাকেন অ্যান্ড্রয়েড একটা খোলা বনের মত যেখানে সেই বনের শেরীফ ‘জনাব গুগল’ কোন একটি কাজে শহরের বাইরে গিয়েছেন এবং শেরীফের অবর্তমানে যে যা ইচ্ছা করতে পারে! তবে কথাটি সতয নয়। গুগল সবসময় সব রকম ম্যালওয়ার থেকে এর অপারেটিং সিস্টেম অ্যান্ড্রয়েডকে সুরক্ষিত রাখতে চেষ্টা করে আসছে এবং গুগলের এজন্য রয়েছে চমৎকার শক্তিশালী কিছু স্তর বিশিষ্ট অ্যাডভান্স সিকিউরিটি টুলস নামের একটি নিরাপত্তা সুবিধা। যার ফলে শতকার ০.০০১ এরও কম ক্ষতিকর অ্যাপলিকেশন গুগলের নিরাপত্তা স্তর পার করতে সক্ষম হয়ে থাকে তথা ব্যবহারকারীদের নিকট পৌছাতে সক্ষম হয়। এই নিরাপত্তার সাতটি স্তর নিচে ইলাস্ট্রট করা হয়েছে, দেখে নিতে পারেন। ২ উপরের ছবিটি ভালো করে লক্ষ্য করলে নিরাপত্তা বলয়ের সেই সাতটি স্তর আপনি দেখতে পাবেন। যদি, একজন ব্যবহারকারী ‘অজানা মাধ্যম থেকে সফটওয়্যার ইন্সটল’ সুবিধাটি চালু না করে থাকেন (যা অধিকাংশ ব্যবহারকারীই ভুল করে থাকেন) তবে সেই ক্ষতিকর অ্যাপটি দ্বিতীয় নাম্বার স্তরটিও পার হতে পারবেনা। তাই যারা অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমকে দূর্বল ভাবছিলেন তারা জেনে নিন, ‘এটি দূর্বল তো নয়ই, বরং এর রয়েছে চমৎকার নিয়াপত্তা ব্যবস্থাও।’

৩। কিছু সিকিউরিটি অ্যাপ ক্ষতিকর (স্ক্যাম)

৩ সাধারণ ব্যবহারকারীরা তাদের অজ্ঞতার কারণেই এই ‘ম্যালওয়ার’ বিষয়টি নিয়ে কিছুটা ভয়ে থাকেন এবং এই ভয়কে পুঁজি করে অনেকেই অ্যান্টি ম্যালওয়ার বা সিকিউরিটি টুলস নামের কিছু অ্যাপলিকেশন তৈরি করে টাকা উপার্জন করে থাকেন। এবং একই সাথে মজার এবং দুঃখের বিষয় হচ্ছে এই অ্যাপ গুলোর বেশির ভাগই স্ক্যাম!

৪। কিছু চমৎকার সিকিরিটি অ্যাপঃ যা সত্যিই কাজ করে

৪ যেখানে অন্যান্য প্রতিষ্ঠান স্ক্যাম সিকিউরিটি অ্যাপলিকেশন সরবারহ করে টাকা উপার্জন করছে সেখানে কিছু প্রতিষ্ঠান আছে যারা আসলেই সাহায্য করতে চেষ্টা করে যাচ্ছে।

৫। আপনিই সবচাইতে বড় হাতিয়ার

আসলে এত ঝামেলা করার কোন দরকার হয়না ম্যালওয়ার থেকে রক্ষা পেতে। ম্যালওয়ারের এই ঝামেলা থেকে সহজে পরত্রান পাওয়ার একটি উপায় হচ্ছে শুধুমাত্র রিলায়েবল সোর্স থেকে অ্যাপলিকেশন ইন্সটল করা। আপনি যদি অচেনা একটি সোর্স থেকে একটি ক্র্যাকড এপিকে ফাইলে আপনার ডিভাইসে ইন্সটল করে থাকেন তবে ম্যালওয়ার দ্বারা আক্রান্ত হবার সম্ভবনা বৃদ্ধি পায়। আর আপনি চাইলে নিরাপদ থাকতে নিচের গাইড লাইন গুলো অনুসরণ করতে পারেনঃ

Related Post
  1. অ্যান্ড্রয়েড ফোনের ৮টি গোপন ব্যবহার, আপনি নাও জানতে পারেন।

Comments

Leave a Reply




Categories

Services

MIDNIGHT BLUE BY Huzaifa Ham